May 15, 2021, 5:02 am

আজ ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস

মেহেরপুর প্রতিনিধি।।
স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরে দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ যখন উন্নয়ন অগ্রগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে ঠিক সেই সময় বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য একাত্তরের পরাজিত শক্তি ও তাদের দোসররা মিলে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। ভিন্ন সময়ে ভিন্ন নাম দিয়ে ধর্মের দোহাই দিয়ে তারা অপকর্ম করছে। কখনও হেফাজত আবার কখনও জামায়াতের নাম দিয়ে ইসলামের দোহাই দিয়ে এ দেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করে রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি ধ্বংস করে দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ করছে। তাদের উদ্দেশ্য বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করা।
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ উল্লেখ করে হানিফ বলেন, রাষ্ট্রবিরোধী সন্ত্রাসী কার্যকলাপে লিপ্ত এই অপশক্তি কঠোরভাবে দমন করেই বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে আমরা এগিয়ে নিয়ে যাবো। এটাই হোক আজকের এই মুজিবনগর দিবসের শপথ।
করোনা মোকাবেলায় সরকারি নির্দেশনা মানার আহবান জানিয়ে মাহবুবুল হক হানিফ বলেন, পৃথিবীর অনেক উন্নত রাষ্ট্রের তুলানায় করোনা দুর্যোগ যথেষ্ট সক্ষমতার সাথে মোকাবেলা করতে আমরা সক্ষম হয়েছি। এই মঞ্চে দাঁড়িয়ে আজকে একটি কথাই বলতে চাই, যারা স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে, বাংলাদেশের স্বাধীন ও সার্বভৌমত্বে বিশ্বাস করে তাদর কাছে এই দিবস অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরের মাথায় দাঁড়িয়ে এখনও দেখি স্বাধীনতা বিরোধী শক্তির আস্ফালন। ১৯৭১ সালে যারা মুক্তিযুদ্ধে বিরোধীধিতা করেছিলেন, যারা এখনও সংবিধানকে মানতে চায় না, জাতীয় সঙ্গীত গাইতে চায় না, যারা এখনও জাতীয় পতাকাটির সম্মান করতে চায় না সে সমস্ত মানুষগুলো স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে থাকার অধিকার রাখে না। আমরা মুজিবনগর দিবসের এ মঞ্চে দাঁড়িয়ে জানিয়ে দিতে চায়, বাংলাদেশে থাকতে হলে সংবিধান মানতে হবে, জাতীয় পতাকা ও জাতীয় সঙ্গীতকে সম্মান দিতে হবে।


এ সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নির্বাচনী প্রচারের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ দরিদ্র তা নিয়ে যা বলেছেন সে বিষয়টি আমাদের বিবেচ্য বিষয় নয়। বাংলাদেশে যে গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে তাতে ২০৩১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ স্বপন, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী, মেহেরপুর ২ আসনের সংসদ সদস্য শাহিদুজ্জামান, মেহেরপুর পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ খালেক, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইয়ারুল ইসলাম, সাবেক এমপি মকুবল হোসেন, জেলা পরিষদ সাবেক প্রশাসক মিয়াজান আলী স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন।
পরে পুলিশ ও আনসারদের একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করেন। গার্ড অফ অনার গ্রহণ শেষে মুজিবনগর আম্রকানন শেখ হাসিনা মঞ্চে প্রেসব্রিফিংয়ে অংশ নেন নেতৃবৃন্দ।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ:
BengaliEnglish