May 26, 2022, 4:24 am

জনকল্যাণ হসপিটালের দ্বারোদ্ঘাটন

নিজস্ব সংবাদদাতা :
বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬১ তম শুভ জন্মদিনে বীরভূম জেলার নানুর ব্লকের অন্তর্গত মঙ্গলপুর পিছিয়ে পড়া গ্রামে জনকল্যাণ জেনারেল হাসপাতালের শুভ উদ্বোধন হয়ে গেলো।
এতদিন ২৫ কিমি দূরত্বের মধ্যে কোনো চিকিৎসা পরিষেবা ছিল না।
মুমূর্ষু রুগীদের বোলপুর অথবা নদী পেরিয়ে মঙ্গলকোটে রুগীদের নিয়ে যেতে হতো। এখন থেকে এইখান থেকে এই পরিষেবা হাতের কাছে।
বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার বাবুদের দ্বারা ২৪ ঘন্টা মানুষ জরুরি পরিষেবা পাবেন।
দ্বারোদ্ঘাটন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ক্ষুদ্র-মাঝারি ও বস্ত্র শিল্প মন্ত্রী মাননীয় শ্রী চন্দ্রনাথ সিনহা।
মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ফিতে কেটে হাসপাতাল জনগণের জন্য দ্বার উন্মুক্ত করে দিলেন।
উপস্থিত ছিলেন অভিজিৎ সিনহা বিধায়ক লাবপুর বিধানসভা এবং মেন্টর বীরভূম জেলা পরিষদ , উপস্থিত ছিলেন কর্মাধ্যক্ষ ,পূর্ত ও পরিবহন বীরভূম জেলা পরিষদ জনাব কেরিম খান , নানুর থানার ও সি, নানুর ব্লক সভাপতি সুব্রত ভট্টাচার্য, । এছাড়া থুপসারা পঞ্চায়েত, বনগ্রাম জলুন্দী পঞ্চায়েত ও নওনগর পঞ্চায়েতের সমস্ত প্রশাসনিক ও সমাজকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন। প্রত্যেক অতিথিগণকে ব্যাজ , উত্তরীয় , পরিয়ে বরণ করে নেন সমাজ সেবী , কবি , সম্পাদক , লেখক হাসপাতালের ডিরেক্টর শ্রী সুনীতি প্রসাদ মন্ডল , কণিকা মন্ডল , উত্তম ঘোষ , সহ পরিচালন সমিতির কর্মকর্তা গণ।
যে সমস্ত ডাক্তার বাবু গণ হাসপাতালে পরিষেবা দেবেন প্রশাসনিক প্রধান সহ প্রত্যেককে বরণ করে নেওয়া হয়।
জনকল্যাণ জেনারেল হাসপাতালের ডিরেক্টর স্বাগত ভাষণে তাঁর হাসপাতাল গড়ে তোলার একটি পারিবারিক ইতিহাসের কথা তুলে ধরণের। একটি অনুন্নত গ্রামে চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দেবার যে মানবিক ও আন্তরিক ইচ্ছা তাও তুলে ধরেন।
বীরভূম জেলার যাঁরা উন্নয়নের কারিগর হাসপাতাল , শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি গড়ে তোলার আড়ালে অনুপ্রেরণা ও উৎসাহের কথাও ব্যক্ত করেন।
মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ভূয়সী প্রশংসা করেন এই এতবড় উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য।
উপস্থিত সকল নেতৃত্ব অত্যন্ত আনন্দিত এবং খুশি বীরভূমের অনেকগুলি অঞ্চল অতি অল্প খরচে উন্নত পরিষেবা মানুষ পাবে এই কারণে।
শুরুতেই প্রথম পর্বের কবি গুরুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক সৈয়দ ۔۔۔۔۔۔۔۔۔।
উদ্বোধনী বক্তব্যে কবিগুরুর বিভিন্ন আলোকিত দিকগুলি তুলে ধরেন।
অনুষ্ঠান ও প্রথম পর্বের সঞ্চালনায় ছিলেন গ্রামের মেয়ে সংগীতা।
দ্বিতীয়পর্বের অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সংগ্রাম মিত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ:
BengaliEnglish