October 22, 2021, 11:29 am

জীবনের শেষ পালকি!

দৈনিক পদ্মা সংবাদ নিউজ ডেস্ক।

সৃষ্টির সেরা জীব মানুষ-শ্রেষ্ঠত্ব দিয়েই সৃষ্টি করেছেন পালনকর্তা, জগতের সবকিছুই মানুষের জন্যই সৃষ্ট।
পৃথিবীতে মানব সভ্যতার মধ্যে জন্মেছি তাই নাম হয়েছে আমার মানুষ, কিন্তু শুধু নাম মানুষ হলে হবে না মানুষের মত মানুষ হলে সুশিক্ষায় শুধু নয় স্ব-শিক্ষায় শিক্ষিত ও বড় হতে হয়। তবে একটা সময় পর্যন্ত পুঁথিগত বিদ্যার প্রয়োজন সেই লক্ষ্যেই পিতা-মাতার সন্তানদেরকে নিয়ে স্বপ্ন দেখা, সেই যে ছোট্ট বেলায় মায়ের ভাষায় কথা বলতে শিখেছি, কথপোকথনের সঙ্গে সঙ্গে পড়তে ও লিখতে শিখেছি। পিতা-মাতার আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন,অনেক স্বপ্নের কথা ভেবে ঠিক পাঁচ বছরে দিয়েছেন পাঠশালায়, মা জননীর স্বপ্ন- সন্তান আমার বিদ্যা শিক্ষায় অনেক বড় হবে, করবে দেশ জয় করবে সমাজের সেবা।

নিজের সৃষ্টি সৃজনশীলতা, আর মেধাশক্তি কাজে লাগিয়ে হবে সুপ্রতিষ্ঠিত, শুধু নিজেই বড় হবে তা নয় মানুষের নানাবিধ সমস্যা সমাধানে থাকবে বদ্ধপরিকর, নিজেকে করবে সমুন্নত-সমাজ ও দেশে ছড়িয়ে পড়বে নাম- খ্যাতি, করবে বিশ্বজয় হবে জয় জয়কার… তখন মায়ের বুকটা গর্ভে ভরে উঠবে।

ছেলে স্বাবলম্বী হওয়ার পরে মায়ের ইচ্ছে হয় ছেলেকে বিয়ে দিয়ে পুত্রবধূ ঘরে নিয়ে আনা। ছেলে সংসারী হয় তারপর ভুলে যায় পিতা-মাতার স্বপ্নের কথা, তাঁদের প্রতি দায়িত্ব কর্তব্যের কথা এমনকি নীতি আদর্শ ও শিক্ষা। ধীরে ধীরে বদলে যায়- মায়ের ভাষায় কথা বললেও বদলে যায় স্বভাব- বদলাতে থাকে চরিত্র অধিক পরিমাণে সুখ আর উচ্চতর জীবন যাপন করার জন্য নিজের সেই যে পাঠশালার শিক্ষা-দীক্ষা বিসর্জন দিয়ে পা বাড়ায় অসৎপথে।

এভাবেই জীবনের শেষ বয়স কাটে অনেক মা- বাবার বৃদ্ধাশ্রমে- অনাদর অবহেলায়; গাড়ি বাড়ি সব থাকে- ঘরে থাকে দামি দামি আসবাব পত্র, সবকিছুই দামী শুধু পিতা-মাতা হয়ে যায় কম দামী! বিবেক- মনুষ্যত্ব হারিয়ে শুধু নিজের স্বার্থের কথা ভেবে নৈতিকতাকে বিসর্জন দেয় তাঁর সেই প্রিয় সন্তান টি, যার জন্য নিজের জীবন শেষ করেছে তিলে তিলে।একবারের জন্যও ভাবেনা আমি মানবতার বিরুদ্ধে যেয়ে অপরাধ জগতে পা বাড়িয়ে আমার আগামীর পথ ঠেলে দিচ্ছি সীমাহীন অন্ধকারে… জীবনের শেষ পালকি আমার জন্য অপেক্ষা করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ:
BengaliEnglish