March 4, 2024, 7:20 am

দর্শনা থানাধীন ঠাকুরপুর হতে ১.৫ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ১

নিজস্ব প্রতিবেদক।
মাদকাসক্তি মারাত্মক সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে । মাদকের নীল নেশা আজ তার বিশাল থাবা বিস্তার করে চলেছে এ দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে । এ এক তীব্র নেশা । হাজার হাজার তরুণ এ নেশায় আসক্ত । এ মরণনেশা থেকে যুবসমাজকে রক্ষা করা না গেলে এ হতভাগ্য জাতির পুনরুত্থানের স্বপ্ন অচিরেই ধূলিসাৎ হয়ে যাবে । আমাদের দেশের তরুণ প্রজন্মের উল্লেখযোগ্য অংশ আজ এক সর্বনাশা মরণনেশার শিকার । যে তারুণ্যের ঐতিহ্য রয়েছে সংগ্রামের , প্রতিবাদের , যুদ্ধ জয়ের , আজ তারা নিঃস্ব হচ্ছে মরণনেশার করাল ছোবলে । মাদক নেশার যন্ত্রনায় ধুঁকছে শত – সহস্র তরুণ প্রাণ । ঘরে ঘরে সৃষ্টি হচ্ছে হতাশা । ভাবিত হচ্ছে সমাজ ।

এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখ র‌্যাব-৬, সিপিসি-২ (ঝিনাইদহ ক্যাম্প) এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে জানতে পারে যে, চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা থানাধীন ঠাকুরপুর গ্রামস্থ এলাকায় কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদক ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য অবস্থান করছে। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে ঘটনার সত্যতা যাচাই ও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্দেশ্যে স্কোয়াড কমান্ডারের নেত্তৃত্ত্বে আভিযানিক দলটি উক্ত স্থানে অভিযান পরিচালনা করার নিমিত্তে ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখ ১৯:০০ ঘটিকার সময় চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা থানাধীন ঠাকুরপুর গ্রামস্থ জনৈক মো: সুলতান (৫০), পিতা- মৃত জাহানী পন্ডিত এর বাড়ীর পেছনে পাকা রাস্তার উপর অভিযান পরিচালনা করে আসামী ১। মো: ওয়াহেদ আলী(৩০), পিতা- মো: ফজলুল হক, মাতা- মোছা: খদেজা খাতুন, সাং- ঠাকুরপুর(পূর্ব পাড়া), থানা- দর্শনা, জেলা- চুয়াডাঙ্গাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় উপস্থিত সাক্ষীদের সামনে গ্রেফতারকৃত আসামীর হেফাজত হতে ১.৫ কেজি গাঁজা, ০১টি মোবাইল ও ০২টি সিম কার্ডসহ উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা থানায় হস্তান্তর করতঃ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ধারায় মামলা রুজু করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও সংবাদ :