September 26, 2021, 3:50 pm

মোদী জমানায় ৪ বছরে বেকারত্বের জ্বালায় আত্মহত্যা বেড়েছে ২৪%, বলছে কেন্দ্রের তথ্যই

অনলাইন ডেস্ক।
গোটা দেশে চাকরির আকাল! চাকরি না পেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিচ্ছে দেশের যুব সমাজ। মোদী জমানায় ৪ বছরে বেকারত্বের জ্বালায় আত্মহত্যার হার বেড়েছে ২৪ শতাংশ। এ তথ্য দিল ‘ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো’ (NCRB)। ২০১৯ সালে আত্মহত্যা করেছেন ২ হাজার ৮৫১ জন। ২০১৬ সালে সেই সংখ্যা ছিল ২,২৯৮।

এনসিআরবি-র তথ্য বলছে, ২০১৬ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বেকারত্বের কারণে দেশে আত্মহত্যার ঘটনা বেড়েছে ২৪%। সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে বিজেপি শাসিত কর্নাটকে। ওই রাজ্যে চাকরি না পেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন ৫৫৩ জন। তার পর মহারাষ্ট্র ও তামিলনাড়ু। ওই দুই রাজ্যে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে যথাক্রমে ৪৫২ ও ২৫১। ২০১৬ সালে বাংলায় আত্মহত্যা করেছিলেন ১০৯ জন। ২০১৭ ও ২০১৮ সালে যথাক্রমে ৯৫ ও ৭৫। ২০১৯ সালে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৪০।

২০১৪ সালে ‘অচ্ছে দিনে’র প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দিয়েছিলেন বছরে ২ কোটি চাকরির আশ্বাস। কিন্তু কেন্দ্রীয় সংস্থার তথ্যই বলছে, ২০১৬ সালে বেকারত্বের কারণে আত্মহত্যা করেছিলেন ২২৯৮ জন। পরের বছরগুলিতে ক্রমপর্যায়ে ২৪০৪, ২৭৪১ ও ২৮৫১। কোভিড সংক্রমণের আগে এই পরিসংখ্যান। গত দু’বছরে ছাঁটাই আরও বেড়েছে।

সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকনমির (Centre for Monitoring Indian Economy) চিফ এক্সিকিউটিভ মহেশ ব্যাস জানিয়েছেন, কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ে চাকরি হারিয়েছেন ১ কোটির বেশি ভারতীয়। অতিমারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৯৭ শতাংশ ঘরে আয় কমেছে।

সুত্র-রয়টার্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ:
BengaliEnglish