December 5, 2022, 10:03 am

শংকরপুরের আফজাল হত্যা মামলা প্রধান আসামি টেরা সুজন ও শুভর জবানবন্দি

প্রধান আসামি টেরা সুজন ও শুভর জবানবন্দিযশোর শহরের শংকরপুর চাতালের মোড়ে আফজাল শেখ হত্যা মামলার প্রধান আসামি টেরা সুজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সুজন নীলগঞ্জ তাঁতিপাড়ার জিন্নাত আলীর ছেলে। এছাড়া, এ মামলায় সন্ধিগ্ধ আরও এক আসামিকে আটক করেছে সিআইডি পুলিশ। আটক জুম্মাতুল ইসলাম শুভ বারান্দিপাড়া ২ নম্বর কলোনির নুর ইসলামের ছেলে। শুক্রবার সকালে নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। শুক্রবার রিমান্ড ফেরত সুজন ওরফে টেরা সুজন ও আটক শুভকে আদালতে সোপর্দ করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি পুলিশের এসআই রফিকুল ইসলাম। দু’ আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সালমান আহমেদ শুভ আসামিদের জবানবন্দি গ্রহণ শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
আদালত সূত্র জানায়, আসামিরা জবানবন্দিতে জানিয়েছেন, নিহত আফজালের সাথে আসামি টেরা সুজনের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল। একসাথেই তারা নানা ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকতেন। এরমধ্যে ২০২০ সালে আফজাল টেরা সুজনকে ছুরিকাঘাতে জখম করেন। এ কারণে দীর্ঘদিন অসুস্থ ছিলেন সুজন। সুস্থ হওয়ার পরও আফজাল তাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। এ কারণে পালিয়ে বেড়ায় সুজন। পরে সুজনও আফজালকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। ২৯ মে আফজাল শংকরপুরের জিরোপয়েন্ট থেকে দুধ কিনে বাড়ি ফিরছিলেন। ওইসময় টেরা সুজনের নেতৃত্বে অন্য আসামিরা আফজালকে কুপিয়ে জখম করে। হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
এ ঘটনায় নিহতের পিতা সলেমান শেখ বাদী হয়ে টেরা সুজনসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে কোতোয়ালি থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। শুভকে আটক করে দু’আসামিকে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ। আদালত তাদের জবানবন্দি গ্রহণ শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়।।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     আরও সংবাদ :