December 5, 2022, 10:04 am

শামি-সিরাজ-উমরানের সম্ভাবনার মধ্যে বুমরাকে নিয়ে বড় বার্তা দিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

অনলাইন ডেস্ক।। কাহানি পে ফের টুইস্ট! একটা চোট। এবং সেই ক্রিকেটাররে চোট নিয়ে একাধিক জল্পনা। গত ২৪ ঘণ্টা জসপ্রীত বুমরার চোটের ইস্যু নিয়ে এ ভাবেই ভারতীয় ক্রিকেট উত্তাল হয়ে রয়েছে। বুমরার ফের একবার চোট পাওয়ার জন্য তাঁর আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অভিযান শেষ হয়ে গিয়েছে। এই খবর ভারতীয় ক্রিকেট মহলে চাউর হওয়ার পর থেকে একাধিক সুত্র মারফত নানান খবর ভেসে আসছে। স্ট্যান্ড বাই তালিকায় থাকা মহম্মদ শামি ও দীপক চাহারের অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাওয়ার জল্পনা বেড়েছে। এরমধ্যে যোগ হয়েছে মহম্মদ সিরাজ ও উমরান মালিকের নাম। শোনা যাচ্ছে সিরাজ ও উমরান অস্ট্রেলিয়ার বিমান ধরছেন। সেই বার্তা টিম ম্যানেজমেন্ট ইতিমধ্যেই দুই পেসারকে দিয়েছে। যদিও বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ এর দাবি, বুমরাকে এখনই বাতিলের খাতায় ফেলে দেওয়া উচিত হবে না।

বৃহস্পতিবার সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানায়, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছেন বুমরা। বোর্ডের এক সূত্রকে উদ্ধৃত করে বলা হয়, ছ’মাস ছিটকে যেতে পারেন টিম ইন্ডিয়ার এক নম্বর জোরে বোলার। তবে সৌরভ শুক্রবার একটি ইউটিউব চ্যানেলে বলেছেন, ‘এখনও বুমরা বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যায়নি। দেখা যাক কী হয়। আগামী দু’-তিন দিনে বোঝা যাবে ও অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছে কি না। এখনই ওকে হিসেবের বাইরে রাখা হচ্ছে না।’

আইসিসি-র নিয়ম অনুসারে কোনও দল বিশ্বকাপের জন্য দল নির্বাচন করার পরেও, একটা সময় দলে বদল আনতে পারে। ১৫ জনের দলে এক কিংবা ক্রিকেটার চোট পেলে বদলি খেলোয়াড় নেওয়া যেতে পারে। ৯ অক্টোবর পর্যন্ত ক্রিকেটার বদলের শেষ তারিখ হলেও এখন শোনা যাচ্ছে সেটা বেড়ে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত যেতে পারে। তাই রোহিত শর্মা ও রাহুল দ্রাবিড়ের টিম ম্যানেজমেন্ট হাতে আরও একটু সময় পেয়েই যাচ্ছে।

গত জুলাই মাসে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে লর্ডসে একদিনের ম্যাচ খেলার সময় পিঠে চোট পান বুমরা। এরপর তাঁর অস্ত্রোপচার হয়েছিল। ফিট না হওয়ার জন্য এশিয়া কাপ ২০২২ পর্যন্ত খেলতে পারেননি। কয়েক সপ্তাহ আগে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজে কামব্যাক করেছিলেন বুমরা। তবে প্রথম ম্যাচে তিনি খেলেননি। তখন থেকেই তাঁর চোট নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছিল। বাকি দুটি ম্যাচে খেললেও, তাঁর পারফরম্যান্স মোটেও ভালো ছিল না। গত বুধবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মাঠে নামা তো অনেক দূরের কথা, দল থেকে সোজা জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে চলে যান তিনি। যদিও টসের সময় রোহিত জানান যে, বুমরার হালকা চোট রয়েছে। তাই তিনি মাঠে নামতে পারেননি। বুমরার বদলে ভারত সিরিজের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামায় দীপক চাহারকে, যিনি বিশ্বকাপের মূল স্কোয়াডে না থাকলেও স্ট্যান্ড-বাই হিসেবে রয়েছেন।
এখন শোনা যাচ্ছে বুমরার চোট তো সারেইনি, বরং ‘স্ট্রেস ফ্র্যাকচার’ বেড়েছে। সেইজন্য এই মুহূর্তে ফের একবার এনসিএ-তে চলে গিয়েছেন বুমরা। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, শুধু ‘স্ট্রেস ইঞ্জুরি’ হলে ছ’সপ্তাহের মধ্যে সেরে যেতে পারে। কিন্তু ‘স্ট্রেস ফ্র্যাকচার’ হলে ছ’মাসও লাগতে পারে। আবার শিরদাঁড়ার দু’পাশেই ফ্র্যাকচার হলে এক বছরও লেগে যেতে পারে। খুব সতর্ক থাকতে হবে চোট নিয়ে। তাড়াহুড়ো করে মাঠে নামলে ফের চোট লাগার আশঙ্কা থেকেই যাবে। ফলে নিজের ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে ঝুঁকি নিতে রাজি নন বুমরা। টিম ম্যানেজমেন্টও কোনও ঝুঁকি নিতে নারাজ।

ফলে খুব স্বাভাবিক ভাবেই কোভিডমুক্ত শামি দলে ঢোকার লড়াইতে চলে এসেছেন। এ দিকে চলতি বছর ২৭ ফেব্রুয়ারি শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছিলেন সিরাজ। এর পর থেকে কাউন্টি খেলতে ব্যস্ত ছিলেন এই তরুণ পেসার। এহেন সিরাজ যদি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দুটি ম্যাচে পারফর্ম করতে পারেন, তাহলে তাঁর সম্ভাবনাও একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। এখন দেখার সিরাজ এই সুযোগ কতটা কাজে লাগাতে পারেন। সঙ্গে আবার জুড়ে আবার দীপক চাহার ও গত আইপিএল-এর আবিষ্কার উমরানের নামও ভেসে উঠছে। সিরাজ ও উমরান তো আবার দলের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন।

শুক্রবার সকালে বিসিসিআই বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দেয়, দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজ়ে বুমরার জায়গায় সিরাজকে নেওয়া হয়েছে। পিঠের চোটে কাবু বুমরাকে বোর্ডের চিকিৎসকরা দেখছেন বলে জানানো হয়। তবে বুমরার যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অভিযান শেষ হয়ে গিয়েছে সেটা নিয়ে কোনও বিবৃতি দেওয়া হয়নি। এরমধ্যে আবার সৌরভের মন্তব্য নতুন গল্পে নতুন টুইস্ট এনে দিল।।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     আরও সংবাদ :