September 30, 2022, 3:38 am

শ্রীমঙ্গলে রাস্তা থেকে হাসপাতালে ভারসাম্যহীন নারী, ছেলে সন্তানের জন্ম!

অনলাইন ডেস্ক।
সন্ধ্যা থেকেই মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে, সাথে বইছে ঝড়ো হাওয়া। লাইনে গাছ পরে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে অন্ধকারাছন্ন শহর। তখন রাত (৯ সেপ্টেম্বর) প্রায় নয়টা। মানসিক ভারসাম্যহীন গর্ভবতী এক নারী শ্রীমঙ্গল শহরের নতুন বাজার রাস্তার উপর পরে আছেন।

বৃষ্টির মধ্যেই রাস্তার শুয়ে ব্যথায় ছটফট করছেন ওই নারী। মহিলার এই কষ্ট দেখে থানায় ফোন করেন এক ব্যবসায়ী। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান থানার ওসি (তদন্ত) হুমায়ুন কবির।
গর্ভবতী নারীটিকে উদ্ধার করে পুলিশ ভ্যানে করেই নিয়ে যান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।

ওই মহিলাকে দেখা শুনার জন্য ২০০ টাকা দিয়ে সাথে করে নিয়ে যায় অন্য এক মহিলাকে। ভর্তি করান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। মিনিট দশেক পরেই গাইন ওয়ার্ড থেকে আয়া এসে জানান পাগল মহিলা একটি ছেলে সন্তান জন্ম দিয়েছেন। রাতে ওই মহিলাকে দেখার জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একজন মহিলা ও থানার টহল টিম রেখে আসেন।
পুলিশের নিকট ওই মহিলা শুধু তার নাম চুমকী বলতে পরেছে। আর কোন কিছুই বলতে পারেনি।
শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. কামরুন নাহার বলেন, আমরা সাতে সাথে মহিলাটিকে ভর্তি করে চিকিৎসা শুরু করি। পরে নরমাল ডেলিভারি হয়ে একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেয়। বর্তমানে মা ও শিশু উভয়েই ভাল আছেন।

ওসি (তদন্ত) হুমায়ুন কবির বলেন, আমি গিয়ে দেখি মহিলাটি ব্যাথায় কাঁদছে। তাই মানবিক দিক বিবেচনা করে তড়িঘড়ি করে হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানে সে একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেয়। তার সন্তান দেখে খুব খুশি হয়েছি। এখন ভারসাম্যহীন একটি মহিলা কি ভাবে এই সন্তানকে লালন পালন করতে এটা ভেবে কষ্ট হচ্ছে। তিনি বলেন, কোন নিঃসন্তান দম্পতি ওই বাচ্চাটি নিয়ে গেলে ভাল হতো।

হুমায়ুন কবিরকে এই মানবিকতার কাজে সহযোগিতা করেছেন থানার এসআই আমিনুল ইসলাম, এএসআই ইলিয়াস উদ্দিন সোহেল ও পৌরসভার কাউন্সিলর আব্দুল জব্বার আজাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     আরও সংবাদ :