December 9, 2021, 1:55 am

স্বপ্ন দেখা দু’টি চোখ!

এক নজরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক জীবন ও উন্নয়নমুখী কর্ম কান্ডঃ

রাশিদা-য়ে আশরার( কবি ও সাহিত্য সম্পাদক) দৈনিক পদ্মা সংবাদ।

স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশের ক্রান্তিলগ্নে

বঙ্গবন্ধুর আত্মজা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা লাল-সবুজ পতাকার ঝান্ডা হাতে।

চোর বাটপার, স্বার্থপর, মাথামোটা বাঙালি জাতির নষ্ট বিবেক -এ মনুষ্যত্বের পাল উড়িয়ে ছোট্ট নায়ে পাড়ি দিয়েছেন বিশ্বমঞ্চে! বঙ্গবন্ধুর চোখে স্বপ্ন সাজিয়ে, জন্মদাতা পিতার সোনার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে,অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার প্রতিশ্রুতি রক্ষার্থে বদ্ধ পরিকর।

উন্নয়নের ধারায় বৈশ্বিক করোনা মহামারী সামাল দিয়েছেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১, পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, একটি ঘর একটি খামার, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ ইন্টারনেট প্রত্যন্ত অঞ্চলে। যদিও এখনও বাংলাদেশ দারিদ্র্য সীমার নিচে দেশ অবস্থান করছে তবুও মাথাপিছু আয় ও শিক্ষার হার বেড়েছে, উন্নয়নের মহা সড়কে দাঁড়িয়ে অভীষ্ট লক্ষ্যে বর্তমান। আশার বাণী তিনি শুনিয়েছেন, “যেদিন বাংলাদেশকে দারিদ্র ও ক্ষুধামুক্ত করতে পারবো- সেদিনই আমার এই প্রচেষ্টা সার্থক হবে।” যখন মানুষ কাজ করে তখন তার মূল্যায়ন হয় না, একদিন নিশ্চয়ই মূল্যায়ন হবে-আর স্বপ্ন দেখার চোখ কখনো থেমে থাকে না নিজের স্বপ্ন দেখেন অন্য কেউ স্বপ্ন দেখান!
“তোরা যে যাই বলিস ভাই আমার সোনার হরিণ চাই।”

আরও পড়ুন।

👉ওরা আমার মুখের ভাষা কাইড়া নিতে চায়: ভাষাসৈনিক রফিকউদ্দিন

আলোচিত-সমালোচিত ছোট্ট সেই বাংলাদেশ টি এখন উন্নত দেশের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাঁড়াতে শিখেছে, তলাবিহীন ঝুড়ি টা হাটি হাটি পা পা করে এখন ডিজিটাল বাংলাদেশ! দেশ চলছে- দেশ চলবে তার নিজস্ব গতিতে মাত্র ৯/১০ বছর আগেও আজকের বাংলাদেশকে কল্পনা করা যেত না। কিন্তু সময় থেমে থাকে না, সময় ও জীবন যেমন থেমে থাকেনা তেমন থেমে নেই তাঁর পথ চলা! যুদ্ধ বিধ্বস্ত একটি দেশ ও নিম্ন মধ্যম আয়ের এর অভাবগ্রস্ত জনসংখ্যা ও বাঙালি জাতিকে নিয়ে স্বচ্ছ ভাবে এবং খুব সহজে উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছানো খুব সহজ নয়। সম্ভব নয় তবুও তিনি দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন অগ্রগতির লক্ষ্যে- স্বমহিমায় উজ্জ্বল! একজন বঙ্গকন্যা বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য আত্মজা পরিবারের সবাইকে হারিয়ে যিনি অমানবিক এক জীবন যাপন করেছেন একথা বলাই বাহুল্য; এত বড় শোকের বোঝা একজন রক্তমাংসের মানুষ হিসাবে নিশ্চয় কঠিন! তার উপর দেশের গুরু ভার দায়- দায়িত্ব, যাইহোক শোককে শক্তিতে পরিণত করে সমগ্র দেশের ভার কাঁধে নিয়েও তিনি নিবেদিত প্রাণ।

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে জননেত্রী শেখ হাসিনার সাহসী পদচারণা ও অবদান অস্বীকার করতে পারবে না বাঙালী জাতি। আত্ম স্বার্থ দূরে রেখে আসুন, সামগ্রিক উন্নয়নের কথা বলি, দেশের একজন সুনাগরিক হিসাবে- বিশ্বায়নের এই যুগে উন্নয়নের ধারায়, উন্নতির উৎকর্ষে। আপন সংস্কৃতি- আপন কীর্তি ও বাঙালীয়ানায়- লাল সবুজ পতাকার সবুজ বেদীতে সগর্বে উড়ুক বিশ্বব্যাপী!

জয় বাংলা-জয় বঙ্গবন্ধু… জয়তু- দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ:
BengaliEnglish