July 22, 2024, 4:14 am

বেশি বেশি ফ্যান ফলোয়ার বাড়াতে পুরুষ হয়ে গেল নারী!

অনলাইন ডেস্ক।
সোশ্যাল মিডিয়ায় ফ্যান ফলোয়ার বাড়াতে কত মানুষ কত কাণ্ডই না করেন। তবে ইনি যা করলেন তেমনটা মনে হয় আগে কখনও হয়নি। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতেই তার সব রহস্য ফাঁস হয়ে গেল। আসলে নারী রুপে তিনি এক পুরুষ!
টুইটারে আজুসাগাকুয়ুকি নামের এক জাপানি বাইকারের অ্যাকাউন্ট রয়েছে। ছবি দেখলে ভাববেন সেটি সত্যিই কোনও নারী বাইকারের অ্যাকাউন্ট। যিনি বাইক নিয়ে ঘুরে বেড়ান আর একের পর এক ছবি পোস্ট করেন ফ্যানদের জন্য। আর এমন সুন্দরী এক বাইকারের ছবি হাজারে হাজারে লাইক পাবে সেটাই স্বাভাবিক। তা পেতে কোনও সমস্যাও হয়নি এত দিন। একের পর এক ছবির হাত ধরে দিনে দিনে তার ফ্যান ফলোয়ারের সংখ্যাও বাড়ছিল। এখন তার টুইটার আক্যাউন্টে ২০ হাজারের বেশি ফলোয়ার।
কিন্তু সম্প্রতি সেই ফলোয়াররা কার্যত হতাশ হয়ে পড়েন। কারণ যাকে তারা একজন সুন্দরী নারী বলে চিনতেন তিনি আসলে বছর পঞ্চাশের এক পুরুষ। আর সেই রহস্য উদঘাটিত হয় তারই পোস্ট করা একটি ছবিতে।
সম্প্রতি এই বাইকার তার টুইটারে এমন একটি ছবি পোস্ট করেন যেখানে ফোকাসে পরিচিত সুন্দর নারীর মুখটিই ভেসে উঠেছে। কিন্তু বাইকের ভিউ ফাইন্ডারের আয়নায় এক মাঝ বয়সি পুরুষের মুখ দেখা যায়। আর সেই ছবি দেখে অনেকের সন্দেহ হয়, সামনে যে নারীর ছবি দেখা যাচ্ছে সেটি সম্ভবত ভুয়া। আয়নায় ধরা পড়া মুখটিই আসল। যাকে কোনও ভাবে পরিবর্তন করে নারীর ছবি বলে চালানো হচ্ছে।
এই অভিযোগ ওঠার পরই খোঁজ খবর শুরু হয়ে যায় ওই ‘নারী’ বাইকারের পরিচয় জানতে। শেষে জানাও যায় জাপানি এই বাইকার আসলে একজন পুরুষই। শেষ পর্যন্ত তার সঙ্গে যোগাযোগও করা সম্ভব হয়। ধরা পড়ার পর তিনি আর নিজেকে লুকিয়ে রাখতে পারেননি। এবং কেন তিনি এই কাজ করতেন তাও জানিয়েছেন জাপানি সংবাদমাধ্যমকে।
জাপানি এই পুরুষ বাইকার জানিয়েছেন, প্রথমে তিনি তার আসল ছবিই দিতেন। কিন্তু সেই ছবি বেশি লাইক পেত না টুইটারে। শেষে মজা করার জন্য ‘ফেসঅ্যাপ’-এর সাহাজ্যে নিজের মুখ, কম বয়সি নারীর মতো বানিয়ে পোস্ট করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই তা হাজারখানেক ‘লাইক’ পেয়ে যায়। এর পর তিনি বিষয়টি নিয়ে বেশ মজাই পেয়ে যান। তার পর থেকে নারী সেজে একের পর এক ছবি পোস্ট করতে থাকেন আর হু-হু করে বাড়তে থাকে তার ফলোয়ারের সংখ্যাও। এত দিন তিনি বেশ উপভোগও করছিলেন তার এই নারী রূপ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও সংবাদ :