July 16, 2024, 9:44 pm

দামুড়হুদা কুড়ুলগাছি ঠাকুরপুর বড় মসজিদ পাড়ার রাস্তার বেহাল দশা

সাংবাদিক ইমরান নাজিরঃ

চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের ঠাকুরপুর বড় মসজিদ পাড়ার রাস্তারটির বেহাল দশা। সংস্কার না হওয়ায় জনদুর্ভোগে পড়েছে গ্রামবাসী। ঠাকুরপুর বড় মসজিদ পাড়া থেকে শুরু করে মুশিকোটান পাড়া পযন্ত রাস্তার কারণে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন গ্রামের শত শত মানুষ। এই সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় সারা রাস্তা জুড়ে ছোট ছোট গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টিতেই এখন রাস্তার গর্তে পানি জমে যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে এবং প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।

একটু বৃষ্টি হলেই গর্তে পানি জমে পথচারীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। অথচ কর্তৃপক্ষের এদিকে কোনো নজর নেই।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাস্তাটি দীর্ঘদিন সংস্কার ও‌ ইট বিছানোর অভাবে বিভিন্ন স্থানে ছোটবড় গর্তে সৃষ্টি হয়েছে। রাস্তার সাথে পুকুর থাকার কারণে রাস্তা ভেঙ্গে পড়ে যাচ্ছে। আবার সামান্য বৃষ্টিতে কাদাঁপানি অতিক্রম করে গন্তব্যে স্থানে পৌঁছাতে হয়। ফলে সাধারণ মানুষের যাতায়াতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়। এ রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করে শত শত সাধার‌ণ মানুষ। এই পথ দিয়ে শত শত মানুষ মসজিদে নামাজ পড়তে আশে, কলেজ, স্কুল ,মাদ্রাসা, মেডিকেল, ইত্যাদি জায়গায়।

এবং পাশে বড় জামে মসজিদ, বাজার যাতায়াতের পথ। তাছাড়া ও জনবহুল গ্রামের সাধারণ মানুষ, কৃষকের উৎপাদিত ফসল বাজারজাত, কোমলমতি শিক্ষার্থী এবং রোগীদের যাতায়াতে যথেষ্ট গুরুত্ব বহন করে এ রাস্তা। রাস্তার উভয় পাশে পুকুর থাকায় বিভিন্ন স্থানে রাস্তা ভেঙ্গে পড়ছে এবং রাস্তা সরু হয়ে গেছে তেমনি রাস্তাটির অনেক জায়গায় ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। তারপরও রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন পিকআপ ভ্যান, অটোরিকশা, মোটরসাইকেল, ভ্যানসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করে।

কিন্তু ঝুঁকিপূর্ণ এ রাস্তা কবে সংস্কার ও ইট বিছানোর ব্যবস্থা গ্রহণ হবে এ নিয়ে শঙ্কিত রয়েছে এলাকাবাসী। কর্তৃপক্ষের কাছে এলাকাবাসীর দাবি অচিরেই যেন এই ঝুঁকিপূর্ণ রাস্তাটি সংস্কার ও ইট বিছানোর কাজ দূরত্ব শুরু করা হয়। রাস্তাটিতে ইট বিছানো হলে, শত শত মানুষের দুঃখ কষ্ট দূর হবে।

এলাকাবাসীর একটায় দাবি, এই রাস্তাটি যেন চেয়ারম্যান ও মেম্বার, নেতাকর্মীসহ, এই রাস্তার বিষয় টা মেরামতের জন্য নজরে থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও সংবাদ :