ইউএনওকে লাঞ্ছিতের অভিযোগ সঠিক নয়, দাবি বরখাস্তকৃত বেড়া মেয়রের

0
9

দৈনিক পদ্মা সংবাদ ডেস্ক ।।
ইউএনওকে লাঞ্ছিতের অভিযোগ সঠিক নয়, দাবি বরখাস্তকৃত বেড়া মেয়রের।
উন্নয়ন সমন্বয় সভায় পাবনার বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ আনাম সিদ্দিকীর সাথে বাদানুবাদ হলেও তাকে লাঞ্ছিত করেননি বলে দাবি করেছেন বেড়া পৌরসভার সাময়িক বরখাস্ত হওয়া পৌর মেয়র আব্দুল বাতেন। বুধবার দুপুরে বেড়া পৌরসভা মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করতে এ কথা বলেন তিনি।

বেড়া উন্নয়ন ফোরামের আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে আব্দুল বাতেন বলেন, গত ১২ অক্টোবর উপজেলা সমন্বয় সভায় ইউএনওকে লাঞ্ছিত করার বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে যে সংবাদ প্রচার ও প্রকাশ হয়েছে তা সঠিক নয়। সেদিন তিনি শুধু উপজেলার উন্নয়নে ঘাট ইজারার টাকা নীতিমালা অনুযায়ী উপজেলা পরিষদে দেয়ার কথা বলেছিলেন।

ইউএনওকে শারিরীকভাবে লাঞ্ছিত করার কোনো ঘটনা ঘটেনি। জেলা প্রশাসক বা ইউএনও কারো সাথে তার সম্পর্কের অবনতি নেই। এই ইস্যুটাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার অপচেষ্টা হয়েছে।
তিনি সংবাদকর্মীদের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের প্রতি গত ৪ বছরের বেড়া উপজেলার ইজারাকৃত অর্থ উপজেলার উন্নয়নের স্বার্থে উপজেলা পরিষদের রাজস্ব তহবিলে দেয়ার অনুরোধ জানান।পৌর মেয়রের পদ থেকে বরখাস্ত হওয়ার ঘটনার তদন্তেরও দাবি জানান তিনি।
তবে, আব্দুল বাতেনের বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগের সুনির্দিষ্ট প্রমাণ রয়েছে বলে জানিয়েছেন বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ আনাম সিদ্দিকী। ইজারার রাজস্ব আয় নিয়ে কোন অনিয়ম হয়নি। আব্দুল বাতেন উন্নয়ন সভায় নিজের মত করে আইনী ব্যাখ্যা তৈরি করে তা অনুমোদনে চাপ দেন।
সেটা কার্যতালিকা থেকে বাদ দেয়ায় সভার সকল সদস্যবৃন্দের সামনেই আমাকে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে শারীরীকভাবে লাঞ্ছিত করেন। সে ঘটনার সুনির্দিষ্ট সাক্ষ্য প্রমাণ রয়েছে। সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তাকে বরখাস্ত করেছেন।
গত সোমবার উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে মাসিক সভাকালে মেয়র আব্দুল বাতেনের বিরুদ্ধে ইউএনও আসিফ আনাম সিদ্দিকীকে লাঞ্ছিত এবং অশ্রাব্য ভাষায় গালাগাল ও ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ ওঠে। এরই ভিত্তিতে স্থানীয় সরকার বিভাগ মঙ্গলবার তাকে মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here