চির ঘুমে বাঙালির ফেলু সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

0
18

অনলাইন ডেস্ক : ৪০ দিনের লড়াই শেষ। তাঁর ওভাবে শুয়ে থাকাটা কিছুতেই মেনে নিতে পারছিল না আপামর বাঙালি। ক্যান্সারকে হারিয়ে একের পর এক ছবি উপহার দেওয়া সৌমিত্র যেন এবারটাও জিতেই ফিরবেন। এই আশাতেই বুক বাঁধছিলেন অগণিত ভক্ত।

তবু সবকিছুরই একটা উপসংহার থাকে। সেভাবেই শেষ হয়ে গেল একটা অধ্যায়। জীবনের পরিসর ছাড়লেন বটে। বাঙালির মনে তিনি অবিনশ্বর। রবিবার বেলা ১২ টা ২৫ নাগাদ অভিনেতার মৃত্যুর খবর ঘোষণা করে বেলভিউ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৫।

করোনায় সংক্রমিত হয়ে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে গত বেলভিউ নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। পরে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। করোনা সেরে গেলেও তাঁর প্রস্টেটের পুরনো কর্কটরোগ ফিরে আসে। ছড়িয়ে পড়ে ফুসফুস এবং মস্তিষ্কে। সংক্রমণ ঘটে মূত্রথলিতে।

জানা যাচ্ছে শ্বাসকষ্ট ছিল বলেই তাঁকে বাইপ্যাপে রাখা হয়েছিল। সৌমিত্রের মৃত্যুর খবরে শোকস্তব্ধ টলি পাড়া-সহ গোটা চলচ্চিত্র জগত।

করোনা মহামারীর মধ্যেও কাজ থেকে বিরতি নেননি অভিনেতা। পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের পরিচালনায় নিজের বায়োপিকের জন্য লকডাউন পরবর্তী সময়ে শ্যুটিং চালিয়ে যাচ্ছিলেন। ছবির নাম অভিযান। এছাড়া ৩০ সেপ্টেম্বর একটি ডকু ফিচারের শ্যুটিংও করেন তিনি। সেদিন থেকেই অসুস্থ বোধ করতে থাকেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here