শার্শার যুবলীগ নেতা তোজাম হত্যা মামলার ১১ আসামি বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত।

0
13

আরিফুজ্জামান আরিফ: শার্শার দক্ষিন বুরুজবাগান গ্রামের যুবলীগ নেতা তোজাম হত্যা মামলার ১১ আসামি বেকসুর খালাস দিয়েছে ।
শার্শার দক্ষিন বুরুজবাগান গ্রামের যুবলীগ নেতা তোজাম হত্যা মামলার ১১ আসামি বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত।

আসামিদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ প্রমাণ করতে সক্ষম না হওয়ায় আজ বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিচারক জেলা ও দায়রা জজ ইখতিয়ারুল ইসলাম মল্লিক এ আদেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আসামি পক্ষের আব্দুল্লা-হেল-কাফি মিলন।

খালাসপ্রাপ্ত হলো, নাভারণ কামারবাড়ি গ্রামের আব্দুর রহিম সরদার, সোহানুর রহমান সোহান, মিঠুন, আব্দুল আজিজ, উত্তর বুরুজবাগান গ্রামের মনিরুজ্জামান মনির, দক্ষিন বুরুজবাগান গ্রামের সাজন, নাভারণ রেলবাজার এলাকার ইয়াশিন, ইমরান, নিশ্চিন্তপুর গ্রামের আরমান, ঝিকরগাছার নবীবনগর গ্রামের অনিক হোসেন ও গদখালির সাকিল।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর রাতে রহিম সরদার মোজানকে একটি সালিশে তার বাড়িতে ডাকে। যুবলীগ নেতা মোজাম রাত সাড়ে ৮টার দিকে নাসিরকে সাথে নিয়ে যায়। রাত ৯টার দিকে সালিশ শেষে মোজাম ও নাসির মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিল। পথিমধ্যে কামারবাড়ি মোড়ে পৌছুলে তাদের গতিরোধ করে একদল সন্ত্রাসী মোজাম ও নাসিরকে কুপিয়ে জখম করে। গুরুতর আহত মোজামকে প্রথমে যশোর ও পরে ঢাকায় নেয়া হলে ৮ ডিসেম্বর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

এব্যাপারে নিহতের পালিত পিতা সিরাজুল ইসলাম ১১ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

মামলার তদন্তকালে মোজামের মৃত্যু হওয়ায় হত্যা চেষ্টা মামলাটি হত্যা মামলায় রুপান্তর হয়।

মামলা তদন্ত শেষে ১১ জনকে অভিযুক্ত করে ২০১৫ সালের ১৪ জুন আদালতে চার্জশিট জমা দেন ডিবি পুলিশের তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের ওসি মনিরুজ্জামান।

এ মামলার দীর্ঘ স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় বিচারক তাদের খালাস দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here