March 4, 2024, 8:14 am

উপলব্ধির পাতা থেকে, সাম্প্রতিক- চলমান সময়ে করোনার উপস্থিতি!

রাশিদা-য়ে আশরার,কবি ও সাহিত্য সম্পাদক দৈনিক পদ্মা সংবাদ।।

বিশ্বজুড়ে একযোগে করোনা ২০২০ বিস্ময় হতবাক বিশ্ব! সবাই জেনে গেছেন বর্তমান করোনা পরিস্থিতি
তে আমাদের কি কি পালন করা অবশ্য কর্তব্য?
সবার আগে আমাদের প্রয়োজন সচেতনতা, ব্যাপক সচেতনতা বৃদ্ধি হলে আমরা এই ভয়াল করোনার ধ্বংসযজ্ঞ থেকে বেঁচে থাকতে পারব। করোনা সমূলে হয়তো যাবে না আমরা উপলব্ধি করেছি বা ধারণা করছি তবে করণীয় বিষয় গুলো যথাযথ ভাবে এখনো মেনে চলা জরুরী।



আরও পড়ুনদেশের প্রতিটি বিভাগে একটি করে ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হবে:প্রধানমন্ত্রী


আমাদের দেশে উন্নয়ন বৃদ্ধি পেলেও পরিপূর্ণভাবে মানুষের জীবনযাত্রার মান পর্যাপ্ত হারে বৃদ্ধি পায়নি। কাজেই জনসাধারণ এখনো দরিদ্র সীমার নিচে অবস্থান করছে, বিশেষ করে বহুদিন যাবৎ এই করোনা পরিস্থিতির কারণে ভয়াবহ অবস্থা বিরাজ করছে। দেশে ও বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে এখন পর্যন্ত চলছে এর- প্রবাহ; করোনা মহামারী আকারে প্রকাশ না পেলেও!
এখনো নিয়ম মেনে চলা ছাড়া আর কোন বিকল্প নেই, প্রথমত ঘরের বাইরে কোথাও গেলে মাস্ক পরিধান করা, ঘরে ফিরে সব সময় প্রতিশেধক অথবা সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে পরিষ্কার করা,যত্রতত্র হ্যান্ডশেক অথবা খুব কাছাকাছি অবস্থানে না করা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, এক জায়গায় বেশি লোক সমাগম সভা সমিতি মিটিং মিছিল এগুলো থেকে বিরত থাকা, ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা মাঠে একসঙ্গে খেলাধুলা না করা, তরুণ- তরুণীদের অবাধ বিচরণ, প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বেশি না যাওয়া, এই নিয়মগুলো এখনো মেনে চলার অভ্যাস বজায় রাখা প্রয়োজন।

করোনা কালীন সময়ে আরও কিছু বিশেষ সতর্কতা মেনে চলার অভ্যাস গড়ে উঠেছিল- যেমন বাজার থেকে কোন দ্রব্য কিনে সঙ্গে সঙ্গে না খাওয়া, ভিনেগার দিয়ে ৩০মিনিট ভিজিয়ে রাখা ও ভাল করে ধুয়ে খাওয়া, ঘন ঘন হাত ধোয়া। উল্লেখ্য এই নিয়মগুলো বিষাক্ত ফরমালিন, কৃমি এবং অন্যান্য রোগ জীবাণু পোকামাকড় থেকেও রক্ষা করে। করোনা যেহেতু ঠান্ডাজনিত রোগ তাই লাল চা হালকা গরম পানি আদা, লবঙ্গ, দারুচিনি এলাচ, তেজপাতা, কালো জিরা, রসুন ২/৩ কোয়া যে যেভাবে ভালো মনে করেন খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা দরকার। ঠান্ডা সর্দি লাগলে বেশি দেরি না করে খারাপ মনে হলে অন্তত চার দিনের মাথায় হলেও ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করা, ফোনে- অনলাইনে অথবা সশরীরে রোগীর অবস্থা বুঝে,খারাপ মনে হলে করোনা টেস্ট করাতে দেরি না করা।করোনা নতুন রূপে এখনো ঘুরেফিরে বিরাজ করছে। এখন প্রকৃতিতে শীত ঋতু, শুষ্ক আবহাওয়ার কারণে ধুলাবালি বেশী যার কারণে এই অভ্যাস গুলো মেনে চলা প্রয়োজন। সকাল সন্ধ্যা অন্ততঃ কাপ হলেও লাল চা খাওয়ার অভ্যাস বজায় রাখুন।

পরিশেষে, আবারো উল্লেখ করছি,দীর্ঘদিন করোনা মহামারীর কারণে এখন আমরা নিজেরাই অনেকটা সচেতনা গ্রহণ করতে পারি এবং জেনেছি- বুঝেছি। সাধ্যমত সম্পূর্ণ নিয়ম কানুন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাই একমাত্র এই ভয়াবহ করোনা ও লকডাউন থেকে বাঁচতে পারি। আসুন নিজে বাঁচি… পরিবার কে বাঁচায় সমাজ দেশ ও রাষ্ট্রকে একটি উন্নত জীবন যাপন ও স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে সহায়তা করি। সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন সংস্থা তহবিলের মাধ্যমে বন্যা, ক্ষরা, অনাবৃষ্টি সহ যে কোন মহামারী থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে সর্বদা সচেষ্ট থাকি।

মারাত্মক ছোঁয়াচে করোনা থেকে সবে মাত্র আমরা রেহাই পেয়েছি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অফিস-আদালত সহ জনজীবনে মুক্তির দেখা মিলেছে তার মানে এই নয় করণা সমূলে বিনষ্ট হয়েছে। একটা কথা মনে রাখা প্রয়োজন মাস্ক পরা করোনা সহ ধুলাবালি ধ্বনিত যেকোনো রোগ থেকে রক্ষা করে মাস্ক, ঘরের বাইরে গেলে যেন অবশ্যই মাস পরে যাওয়ার অভ্যাস অব্যাহত রাখি। যেখানে সেখানে থুথু সহ ময়লা আবর্জনা না ফেলে ডাস্টবিন ব্যবহার করি, তাহলে পরিবেশ যেমন দূষণ মুক্ত থাকবে তেমন বিভিন্ন রোগ- প্রতিরোধ গড়ে উঠবে। আসুন সবাই মিলে নিয়ম মেনে চলি… আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া প্রার্থনা ও শুকরিয়া আদায় করি। তিনি স্বাভাবিক জীবন যাপন ফিরিয়ে দিয়েছেন,তেমনি যেন সব সময় সুস্থ- সুন্দর ও অভাব, দারিদ্র্যমুক্ত এবং সন্ত্রাস মুক্ত রাখেন। আমিন। ২০২১

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও সংবাদ :