March 4, 2024, 7:11 am

এই জয় বাংলাদেশের মহিলা ক্রিকেটে পরিবর্তন আনবে’, পাকিস্তানকে হারিয়ে বললেন ফাহিমা

অনলাইন ডেস্ক।
এই প্রথমবার আইসিসি মহিলা বিশ্বকাপে মাঠে নামার যোগ্যতা অর্জন করেছে বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টে নিজেদের অভিষেক ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হার মানেন নিগার সুলতানারা। দ্বিতীয় ম্যাচে আয়োজক নিউজিল্যান্ডের হাতে বিধ্বস্ত হয় বাংলাদেশ। তবে তৃতীয় ম্যাচে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দুরন্ত ঐতিহাসিক জয় তুলে নেয় তারা।

হ্যামিল্টনে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ৯ রানের উত্তেজক জয় ছিনিয়ে নেয় বাংলাদেশের মহিলা ক্রিকেট দল। বিশ্বকাপের ইতিহাসে এটাই তাদের প্রথম এবং এখনও পর্যন্ত একমাত্র জয়।

আর এই ম্যাচ জেতাতে যিনি মুখ্য ভূমিকা নিয়েছেন, সেই ফাহিমা খাতুন বলে দিয়েছেন, এই জয়ের হাত ধরেই বাংলাদেশের মহিলা ক্রিকেটে পরিবর্তন আসবে। ফাহিমা এ দিন ৮ ওভার বল করে ৩৮ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন। ফাহিমা বলেছেন, ‘এটা বাংলাদেশের মহিলা ক্রিকেটে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য জয়। আমি আশা করব, এই জয় বাংলাদেশের মহিলা ক্রিকেটে বড় পরিবর্তন আনবে।’

অন্যদিকে, চলতি বিশ্বকাপের প্রথম তিন ম্যাচে যথাক্রমে ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হারের হ্যাটট্রিক করার পরে বাংলাদেশের মোকাবিলায় নামে পাকিস্তান। তবে প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলতে নামা বাংলাদেশের কাছেও পরাজয়ের মুখ দেখতে হয় বিসমাহ মারুফদের। চলতি বিশ্বকাপে এই নিয়ে টানা ৪ ম্যাচে হারল পাকিস্তান।

হ্যামিল্টনে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। তারা নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ২৩৪ রান করে। মেয়েদের ওয়ান ডে ক্রিকেটের ইতিহাসে এটি বাংলাদেশের সর্বোচ্চ দলগত ইনিংস। ফরজানা হক ৭১, শর্মিন আখতার ৪৪ ও নিগার সুলতানা ৪৬ রান করেন। ৪১ রানে ৩টি উইকেট নেন পাকিস্তানের নাশরা সান্ধু।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান ৫০ ওভারে ৯ উইকেটের বিনিময়ে ২২৫ রানে আটকে যায়। ব্যর্থ হয় সিদরা আমিনের শতরান। তিনি ১০৪ রান করে দুর্ভাগ্যজনক রান-আউট হন। এছাড়া নাহিদা খান ৪৩ ও বিসমাহ মারুফ ৩১ রান করেন। ৩৮ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচের সেরা হয়েছেন বাংলাদেশের ফহিমা খাতুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও সংবাদ :