April 16, 2024, 6:15 am

গুলশানে চালু হচ্ছে ‘স্মার্ট পার্কিং’ অ্যাপ, যেভাবে ব্যবহার করবেন

রাজধানীতে বসবাসরত ব্যক্তিগত গাড়ির মালিকদের পার্কিং নিয়ে সমস্যা পোহাতে হয় প্রতিদিনই। যাদের গাড়ি আছে তারা গাড়িসহ বাইরে বের হলেই নিরাপদ পার্কিং নিয়ে সমস্যার কারণে ত্যক্ত-বিরক্ত। তাই এবার এমন সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)।

সমস্যার সমাধানে ডিএনসিসির ‘স্মার্ট অন স্ট্রিট পার্কিং’ কার্যক্রম পরীক্ষামূলকভাবে চালু হতে যাচ্ছে আগামীকাল (বুধবার)।

আজ ডিএনসিসির মুখপাত্র মকবুল হোসাইন তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, মেয়র আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

স্মার্ট অন স্ট্রিট পার্কিং কী? স্মার্ট অন স্ট্রিট পার্কিং একটি মোবাইল অ্যাপ। যত্রতত্র পার্কিং সমস্যা দূর করতে ঘণ্টাপ্রতি টাকা পরিশোধ করে এই অ্যাপের মাধ্যমে সড়কের পাশে পার্কিংয়ের ব্যবস্থা চালু হবে এর মাধ্যমে। আর এই অ্যাপের মাধ্যমে গাড়ির মালিক বা চালক দেখতে পাবেন আশপাশে কোথায় পার্কিং স্লট ফাঁকা আছে। পরে সেখানে গিয়ে অ্যাপ ব্যবহার করে যে কেউ তাদের গাড়ি পার্কিং করতে পারবেন। অন স্ট্রিট পার্কিংয়ের নাম দেওয়া হয়েছে ‘ডিএনসিসি স্মার্ট পার্কিং’।

প্রাথমিকভাবে গুলশান এলাকায় ২০২টি গাড়ি স্মার্ট পার্কিংয়ের মাধ্যমে পার্কিং করতে পারবে। প্রথমে গুলশান এলাকায় এই সেবা চালু করা হলেও পরবর্তীতে ডিএনসিসির আওতাধীন বিভিন্ন এলাকায় বিস্তৃত করা হবে এ সেবা।

প্রথমে গুলশানের ৪৬, ৫২, ৫৮, ৬২, ৬৩, ৬৪ ও ১০৩ সড়ক, গুলশান-২ এর কাঁচাবাজারের আশপাশের সড়কে এই স্মার্ট পার্কিং সেবাটি চালু হতে যাচ্ছে। অ্যাপ ব্যবহার করে যে কেউ এসব নির্দিষ্ট স্থানে গিয়ে গাড়ি পার্কিং করতে পারবেন। এ ছাড়া অ্যাপ ব্যবহার করে নির্দিষ্ট জায়গায় পার্কিংয়ের জন্য আগাম বুকিং করেও রাখা যাবে।

স্মার্ট পার্কিংয়ের জন্য ব্যবহৃত ডিএনসিসির স্মার্ট পার্কিং অ্যাপে প্রথমে নিবন্ধন করে এই পার্কিং সেবা নিতে পারবেন গাড়ির মালিক ও চালকরা। এ ছাড়া অ্যাপটির মাধ্যমে দেখতে পারবেন নিজের লোকেশনের আশপাশে কোথায় কোথায় পার্কিং লট ফাঁকা আছে। পাশাপাশি বাসা থেকে বের হওয়ার সময়ও গাড়িটি যেখানে যাবে তার আশপাশে নির্দিষ্ট বা কাঙ্ক্ষিত জায়গায় পার্কিং করার জন্য বুকিং দিয়ে রাখা যাবে এর মাধ্যমে।

পার্কিংয়ে যেন বেশি সংখ্যক মানুষ সুবিধা পায় সেজন্য প্রথম দুই ঘণ্টা পার্কিং ফি নির্দিষ্ট রাখা হলেও এর পরের ঘণ্টা থেকে ফি বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

প্রথম দিকে স্মার্ট পার্কিং সেবার ফি ক্যাশ পেমেন্ট নেওয়া হবে না। এটি পরিশোধ করতে হবে অ্যাপের মাধ্যমে মোবাইল ব্যাংকিং এবং ব্যাংক কার্ড দিয়ে। এ ছাড়া পার্কিং স্থানে পয়েন্ট অব সেলস (পিওএস) মেশিনের মাধ্যমে ফি পরিশোধ করা যাবে। তবে যাদের এসব সুবিধার জন্য ব্যাংক কার্ড বা মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট নেই তাদের পার্কিং কার্ড দেওয়া হবে। আর সেখান থেকেই পার্কিং চার্জ কেটে নেবে কর্তৃপক্ষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও সংবাদ :