April 16, 2024, 6:40 am

নিউজিল্যান্ড সফরে যাচ্ছেন না সাকিব

খেলা ডেস্ক।।
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কাছে দুদিন আগে ছুটির আবেদন করেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তিনি মূলত যুক্তরাষ্ট্রে সন্তানসম্ভবা স্ত্রীর পাশে থাকার জন্য এ আবেদন করেছেন। তাই সাকিবের ছুটির আবেদন মঞ্জুর করেছে দেশের ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা।
বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান।
তিনি বলেন, সাকিব তো ছুটির জন্য চিঠি দিয়েছে। নিউজিল্যান্ড সিরিজ শেষে ওকে পাব। আমরা বোর্ড সভাপতির সঙ্গে আলাপ করেছি। এরপর ওর ছুটি দিয়েছি।
দেশের ক্রিকেটের প্রাণ বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তিনি যতক্ষণ মাঠে থাকেন ততক্ষণ ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে উচ্ছ্বাসের কমতি থাকে না। এমনকি চট্টগ্রামে প্রথম টেস্টে সাকিবের অভাব হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে বাংলাদেশ। সেই টেস্টে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারবিহীন লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা শেষ পর্যন্ত ৩ উইকেটে হেরে যায়।
বৃহস্পতিবার হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে সিরিজ বাঁচানোর লড়াইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাঠে নামে মুমিনুল বাহিনী। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচের একাদশে নেই সাকিব। তিনি চোটের কারণে মাঠের বাইরে আছেন। তবে দূরে থাকলেও সতীর্থদের শুভকামনা জানিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়ে টাইগারদের অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন। ফেসবুকে সাকিব বলেন, প্রথম ম্যাচে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে হারের পর টাইগাররা দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে সিরিজ সমতায় ফেরার লড়াইয়ে প্রস্তুত। বাংলাদেশ দলের জন্য শুভকামনা।
এদিকে ঢাকায় দ্বিতীয় টেস্টে সাকিবের বদলে ডাক পেয়েছেন সৌম্য সরকার। অন্যদিকে চোটের কারণে ছিটকে যাওয়া আরেক ব্যাটসম্যান সাদমান ইসলামের জায়গায় সুযোগ দেয়া হয়েছে মোহাম্মদ মিঠুনকে। মোস্তাফিজের বদলে দলে এসেছেন আবু জায়েদ রাহি। তাছাড়া দ্বিতীয় টেস্টে ব্যাট হাতে ভালোই লড়াই করেছেন ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট-এনক্রুমা বোনাররা। আজ প্রথম দিন শেষে ৫ উইকেট খুইয়ে ২২৩ রান তুলেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে যাই হোক ঢাকা টেস্টেও সাকিবের অভাব অনুভূত হবে ভীষণভাবে। তিনি যে একের ভেতর তিন তা ভালোই জানেন ক্রিকেটপ্রেমীরা।
২০১৯ সালের ২৮ অক্টোবর থেকে ১ বছর সব ধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ছিলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। এই সময় সাকিবকে ছাড়া বাংলাদেশ চারটি টেস্ট খেলেছে। যেখানে তিনটিতেই হেরেছে মুমিনুল বাহিনী। এর মধ্যে দুটি খেলেছিল ভারতের বিপক্ষে। অন্য ম্যাচটি ছিল পাকিস্তানের বিপক্ষে। ওই তিন ম্যাচের সবগুলোতেই ইনিংস ব্যবধানে হারে মুমিনুলরা। তবে সাকিব ছাড়া বাংলাদেশ শুধু একটি টেস্ট ম্যাচ জিতেছে। সেটা অপেক্ষাকৃত দুর্বল দল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে হওয়া সেই ম্যাচে টাইগাররা জিতেছিল ইনিংস ও ১০৬ রানে।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও সংবাদ :